ঢাকা   বৃহস্পতিবার, ৬ অক্টোবর ২০২২, ২১ আশ্বিন ১৪২৯   সকাল ৬:২৬ 

সর্বশেষ সংবাদ

৭১-এর হত্যাযজ্ঞকে গণহত্যা হিসেবে স্বীকৃতি দিল জেনোসাইড ওয়াচ

১৯৭১ সালে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের সময় পাকিস্তানি সামরিক জান্তার বাঙালি জনগোষ্ঠীর উপর সংঘটিত অপরাধযজ্ঞকে গণহত্যা, মানবতা বিরোধী অপরাধ এবং যুদ্ধাপরাধ হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে জেনোসাইড ওয়াচ ।
পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, এছাড়া, লেমকিন ইন্সটিটিউট ফর জেনোসাইড প্রিভেনশন বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুর্বণজয়ন্তীতে মুক্তিযুদ্ধের সময় বাঙালি জাতির উপরে সংঘটিত অপরাধযজ্ঞকে গণহত্যা হিসেবে স্বীকৃতি প্রদান করে।
সংস্থা দুটি জাতিসংঘসহ আর্ন্তজাতিক সম্প্রদায়কে বাংলাদেশে সংঘটিত গণহত্যাকে স্বীকৃতি প্রদানের জন্য আহ্বান জানিয়েছে।
গণহত্যাবিষয়ক সংস্থাসমূহের স্বীকৃতির ফলে ২৫ মার্চ-কে গণহত্যা দিবস হিসেবে স্বীকৃতির জন্য বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ ২০১৭ সালের ১১ মার্চ তারিখে সর্বসম্মতভাবে গৃহীত প্রস্তাবে আন্তর্জাতিক সমর্থন আদায় জোরদার হবে।
বিশ্বে গণহত্যা নিয়ে কাজ করে আন্তর্জাতিক সংস্থা ‘জেনোসাইড ওয়াচ’।

বৃহস্পতিবার (৩ ফেব্রুয়ারি) বাংলাদেশে পাকিস্তানিদের ওই বর্বরতার ৫০ বছর পূর্তিতে জেনোসাইড ওয়াচের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি জর্জ এইচ স্ট্যানটন তাদের ওয়েবসাইটে এ ঘোষণা দেন। শহীদ সাংবাদিক সিরাজউদ্দিন হোসেনের ছেলে তৌহিদ রেজা নূর ২০২১ সালের ডিসেম্বর এ স্বীকৃতির জন্য আবেদন করেন। সেই আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতেই এলো এ স্বীকৃতি।
এর মধ্য দিয়ে ১৯৭১ সালের পাকিস্তানিদের হত্যাযজ্ঞ যুক্তরাষ্ট্রেও গণহত্যার স্বীকৃতি পেলো ও বৈশ্বিক স্বীকৃতির পথ সুগম হলো।
একই সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য ও পাকিস্তানসহ জাতিসংঘের সকল সদস্য দেশকে পাকিস্তানি বাহিনীর করা সেসব অপরাধকে ‘জোনোসাইড, মানবতাবিরোধী অপরাধ এবং যুদ্ধাপরাধ’ হিসেবে স্বীকার করে নিতে আহ্বান জানানো হয়েছে। পাশাপাশি সেই জেনোসাইডে নেতৃত্বদাতাদের মধ্যে যারা এখনও জীবিত, তাদের বিচারের মুখোমুখি করতে জাতিসংঘের সদস্য রাষ্ট্রগুলোর প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে জেনোসাইড ওয়াচের ঘোষণায়।
১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ দিবাগত রাতে (২৬ মার্চ রাতের প্রথম প্রহরে) পাকিস্তানি জেনারেল রাও ফরমান আলীর নীলনকশা অনুযায়ী নিরস্ত্র, ঘুমন্ত বাঙালির ওপর ‘অপারেশন সার্চলাইটে’র নামে শুরু হয় গণহত্যা। এদিন রাতেই জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্বাধীনতার ঘোষণাপত্র চট্টগ্রামের কালুরঘাট বেতার কেন্দ্রে তারবার্তা সহযোগে পাঠিয়ে দেন। পরবর্তীতে তাকে গ্রেপ্তার করে পাকিস্তানিরা।
২৭ মার্চ চট্টগ্রামের কালুরঘাট বেতার কেন্দ্র থেকে প্রথমে আওয়ামী লীগ নেতা এম এ হান্নান এবং পরে মুক্তিযুদ্ধকালীন ‘জেড ফোর্সে’র সমরনায়ক মেজর জিয়াউর রহমান এ ঘোষণাপত্র পাঠ করেন। দীর্ঘ নয় মাস পাকিস্তানি হায়েনাদের বিরুদ্ধে এক রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের মাধ্যমে স্বাধীন বাংলাদেশের অভ্যুদয় ঘটে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

four × 2 =

সবচেয়ে আলোচিত