ঢাকা   মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১২ আশ্বিন ১৪২৯   রাত ২:০১ 

সর্বশেষ সংবাদ

বিয়ে না করেই ঝর্ণার সঙ্গে মিশতেন মামুনুল, কারও কেলেঙ্কারির দায় নেবেন না আলেমরা

বিয়ে না করেই জান্নাত আরা ঝর্নার সঙ্গে অবৈধ মেলামেশা করতেন হেফাজত নেতা মামুনুল হক। তার এমন আচরণ ঝর্ণা মেনে নিতে পারেননি। পরে এ জন্য অনুশোচনাও করেন। ঝর্ণার লেখা তিনটি ডাইরি থেকে এসব তথ্য বেরিয়ে এসেছে। শুক্রবার ইন্ডিপেন্ডেন্ট টেলিভিশনের এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানানো হয়।
এদিকে নারায়ণগঞ্জের রয়্যাল রিসোর্টে গত শনিবার হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হক নারীসহ অবরুদ্ধ হওয়ার পর আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয় ও যুবলীগ, ছাত্রলীগ দুই নেতার বাড়িঘর ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ভাঙচুরের করার ঘটনায় শুক্রবার (৯ এপ্রিল) তিনটি মামলা করা হয়।
অন্যদিকে মামুনুলের নানা কেলেঙ্কারি ফাঁস হওয়ার পর থেকে হেফাজত ইসলামের মধ্যে তাকে নিয়ে নানা প্রশ্ন ওঠছে। প্রথম অবস্থায় হেফাজতের নেতাকর্মীরা তার পক্ষ নিলেও প্রকৃত সত্য বের হয়ে আসায় এখন ক্রমেই তারা দূরে সরে যাচ্ছেন। আলেমরা বলছেন কারও ব্যক্তিগত কেলেঙ্কারি ও অপরাধের দায় হেফাজত নেবে না। মামুনুলকে কেন্দ্র করে দুভাগে বিভক্ত হয়ে পড়ছে হেফাজত।
সোনাগাঁও থানায় দায়ের করা একটি মামলায় মামুনুল হককে প্রধান আসামি করা হয়েছে। সোনারগাঁ থানার ওসি মোহাম্মদ হাফিজুর রহমান জানান, উপজেলা আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয় ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করার ঘটনায় উপজেলা যুবলীগের প্রচার সম্পাদক নাসির উদ্দীন বাদী হয়ে স্থানীয় হেফাজতে ইসলাম ও বিএনপির নেতাকর্মীসহ ১১১ জনের নাম উল্লেখ করে ও অজ্ঞাতনামা ৩০০ জনকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেছেন।
এ মামলায় প্রধান আসামি করা হয়েছে হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হককে এবং উপজেলা যুবলীগের সভাপতি রফিকুল ইসলামের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও বাড়িঘর ভাঙচুরের ঘটনায় রফিকুল ইসলাম বাদী হয়ে হেফাজতে ইসলাম ও বিএনপির ১১৯ জনের নাম উল্লেখ করে ও অজ্ঞাতনামা ২৫০ জনকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেছেন।

এছাড়া অপর মামলাটি দায়ের করেছেন নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ সভাপতি সোহাগ রনির বাবা শাহ জামাল তোতা। এ মামলায় বিএনপি ও হেফাজতে ইসলামের ৭ জনের নাম উল্লেখ করে ও অজ্ঞাতনামা ২৫০ জনকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেছেন।
এদিকে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) শুক্রবার জেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে হেফাজতে ইসলামের কর্মী খালেদ সাইফুল্লাহ (৩৪), কাজী সমির (৩২), অহিদুল ইসলাম (৩৬), আব্দুল আউয়াল (৩৯) কে গ্রেপ্তার করেছে। গ্রেপ্তারকৃতদের সাত দিনের রিমান্ড চেয়ে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।
অপরদিকে গত বৃহস্পতিবার বিকেলে উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের শান্তিনগর দারুণ নাজাত নুরানি মাদরাসায় সরকারবিরোধী গোপন বৈঠক করার অভিযোগে পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হওয়া ৭ জন হেফাজতে ইসলামের কর্মীকে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় সাত দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে পাঠানো হয়। আদালত তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। আগামী রবিবার রিমান্ডের ওপর শুনানি হবে
যা আছে ঝর্ণার ডায়রিতেঃ
বিয়ে না করেই জান্নাত আরা ঝর্নার সঙ্গে অবৈধ মেলামেশা করতেন হেফাজত নেতা মামুনুল হক। তার এমন আচরণ ঝর্ণা মেনে নিতে পারেননি। পরে এ জন্য অনুশোচনাও করেন। ঝর্ণার লেখা দুইশ পৃষ্ঠার তিনটি ডাইরি থেকে এসব তথ্য বেরিয়ে এসেছে। শুক্রবার (৯ এপ্রিল) ইন্ডিপেন্ডেন্ট টেলিভিশনের প্রচারিত প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানানো হয়।
হেফাজত নেতা মানুনুলের কথিত দ্বিতীয় স্ত্রী ঝর্ণা। তাকে নিয়ে মামুনুল নারায়ণগঞ্জের রয়েল রিসোর্টে গিয়েছিলেন অবসর কাটাতে। আর সেখানেই স্থানীয় জনগনের প্রশ্নের মুখে পড়েন তিনি। সে সময় মামুনুল দাবি করেন তিনি দুই বছর আগে দ্বিতীয় বিয়ে করেছেন, ঝর্ণা তার স্ত্রী। তবে এর আগে কেউ তার দ্বিতীয় বিয়ের কথা জানতো না। দেশজুড়ে শুরু হয় তুমুল আলোচনা সমালোচনা।
রয়েল বিসোর্টের ঘটনা নিয়ে মামুনুল তার প্রথম স্ত্রীর কাছেও সত্য গোপন করেন। পরে ফেসবুক লাইভে এসে স্ত্রীকে খুশি করতে সীমিত পরিসরে মিথ্যে বলার অবকাশ আছে দাবি করে নিজের পক্ষে সাফাইও গান। এবং নিজের ফোনালাপ ফাঁসের কথাও বলেন। যা থেকে প্রমাণ হয়, প্রথম স্ত্রী আমেনা তৈয়্যইবা ও কথিত দ্বিতীয় স্ত্রী ঝর্ণার সঙ্গে কথোপকথনের ফোন রেকর্ড ফাঁস হওয়ার ঘটনা সত্য। পরে ব্যাপক সমালোচনার মুখে সেই ভিডিও মুছে ফেলেন তিনি।
এদিকে শুক্রবার ঝর্ণার তিনটি ডাইরি সামনে আসায় অনেক কিছুই খোলাসা হয়েছে। সেখানে লেখা, দীর্ঘদিন ধরেই মনোরঞ্জন করেছেন মামুনুল হক। বিয়ে বর্হিভূত মেলামেশার জন্য অনুশোচনার কথাও লেখা রয়েছে ডাইরিতে। বিয়ে না করেও ঝর্ণার নিয়মিত ভরণপোষণ দিতেন মামুনুল। কিন্তু এর বিনিময়ে ঝর্ণাকে যে মাশুল দিতে হয়েছে তার জন্য ক্ষমাও চেয়েছেন সৃষ্টিকর্তার কাছে। সেখানে লেখা রয়েছে, আমার দাবিদার নেই, আমার শরীরের দাবিদার রয়েছে। এ জীবন শেষ করে দিতে চাই। আল্লাহ আমি কী করবো? আমার কী করা উচিত? কী করলে পাপমুক্ত হবো? ডাইরির পাতায় পাতায় লেখা রয়েছে মামুনুলের প্রতিশ্রুতি ভঙের বিরবণ আর সে কারণে ঝর্ণার আর্তনাদে ভরা কথাবার্তা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

six + 17 =

সবচেয়ে আলোচিত