ঢাকা   শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৫ আশ্বিন ১৪২৯   রাত ২:০৫ 

সর্বশেষ সংবাদ

ভারতের রাষ্ট্রপতি কাল আসছেন

স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপনের অনুষ্ঠানে যোগ দিতে তিন দিনের সফরে বুধবার ঢাকা আসছেন ভারতের রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ। ভারতের রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দর এটাই হবে বাংলাদেশে প্রথম সফর।
ভারতের রাষ্ট্রপতি বাংলাদেশের বিজয় দিবসের সুবর্ণজয়ন্তী, মুজিব বর্ষের সমাপনী দিন উদযাপন এবং বাংলাদেশ-ভারত বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কের ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে এই সফর করবেন। রাষ্ট্রীয় এ সফরে ভারতের ফার্স্ট লেডি এবং রাষ্ট্রপতির কন্যা, ভারতের শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী, দুইজন সংসদ সদস্য, পররাষ্ট্র সচিবসহ বিভিন্ন দফতরের উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তাগণ তার সঙ্গী হিসেবে যোগ দেবেন।
মঙ্গলবার (১৪ ডিসেম্বর) দুপুরে ভারতের রাষ্ট্রপতির সফর নিয়ে আয়োজিত ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন।
সফরের প্রথম দিন, ১৫ ডিসেম্বর সকাল সাড়ে দশটার দিকে রাষ্ট্রীয় অতিথি হিসেবে ভারতের রাষ্ট্রপতিকে হজরত শাহ্‌জালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে স্বাগত জানাবেন বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি। এসময় ভারতের রাষ্ট্রপতিকে বিমানবন্দরে গার্ড অব অনার প্রদান করা হবে। ১০টা ৫০ মিনিটে তেজগাঁও হেলিপ্যাডের উদ্দেশ্য রওনা দেবেন ভারতের রাষ্ট্রপতি।
১১টা ৫ মিনিটে হেলিকপ্টারে চড়ে তিনি সাভারে জাতীয় স্মৃতিসৌধে যাবেন। ১১টা ২৫ মিনিটে জাতীয় স্মৃতিসৌধে মহান মুক্তিযুদ্ধের শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করবেন, ভিজিটর বইয়ে সই এবং বৃক্ষরোপণ করবেন।
সেখানে থেকে তেজগাঁও হেলিপ্যাডে ফিরে দুপুর ১২টা ১০ মিনিটে গাড়িতে ধানমন্ডি ৩২-এ অবস্থিত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্মৃতি জাদুঘর পরিদর্শন করবেন এবং জাতির পিতার স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করবেন। ভারতের রাষ্ট্রপতি সেখান থেকে বের হয়ে ঢাকায় তার আবাসস্থল হোটেল সোনারগাঁওয়ে পৌঁছাবেন ১২টা ৪০ মিনিটে। দুপুরের খাবার ও একান্ত সময় কাটিয়ে বিকেলে ৩টায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন ভারতের রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন।
এরপর বিকেল সাড়ে তিনটায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভারতের রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করতে সোনারগাঁও হোটেলে আসবেন।
ভারতের রাষ্ট্রপতি সন্ধ্যা ৬টা ১৫ মিনিটে বঙ্গভবনের উদ্দেশ্যে রওনা হবেন। ৬টা ২৫ মিনিটে তিনি বঙ্গভবন পৌঁছাবেন এবং ৬টা ৫৫ মিনিট পর্যন্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন। তারপর সেখানে ভারতের রাষ্ট্রপতি বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় ব্যবহৃত একটি টি-৫৫ ট্যাংক এবং একটি মিগ-২৯ যুদ্ধ বিমান বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘরে সংরক্ষণ এবং প্রদর্শনের জন্য বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতিকে উপহার হিসেবে প্রদান করবেন। এরপর ৭টার দিকে ভিজিটর বইয়ে সই করবেন। ৭টা ১০ মিনিটে ভারতের রাষ্ট্রপতি বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি কর্তৃক আয়োজিত নৈশভোজে অংশগ্রহণ করবেন। রাত ৯টায় বঙ্গভবন থেকে তিনি সোনারগাঁও হোটেলে ফিরে রাত্রিযাপন করবেন।
সফরের দ্বিতীয় দিন ১৬ ডিসেম্বর সকাল সাড়ে দশটায় জাতীয় প্যারেড গ্রাউন্ডে ভারতের রাষ্ট্রপতি ‘গেস্ট অব অনার’ হিসেবে বাংলাদেশের বিজয় দিবসের সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করবেন। একই দিন বিকেলে সাড়ে ৫টায় জাতীয় সংসদ ভবনের সাউথ প্লাজাতে বাংলাদেশের বিজয়ের সুবর্ণজয়ন্তীর ঐতিহাসিক মুহূর্তে জাতির পিতার প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ এবং রক্তস্নাত বিজয়ের আবেগ ও আনন্দ উদ্‌যাপনের জন্য আয়োজিত ‘মহাবিজয়ের মহানায়ক’ অনুষ্ঠানে তিনি অংশগ্রহণ করবেন। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, স্পিকারসহ অন্যান্য গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত থাকবেন।

সেখান থেকে রাত ৯টার সময় ভারতের রাষ্ট্রপতি তার আবাস সোনারগাঁও হোটেলে ফিরে যাবেন। সফরের তৃতীয় দিন ১৭ ডিসেম্বর সকাল সাড়ে দশটার দিকে ভারতের রাষ্ট্রপতি ঢাকার রমনা কালিমন্দিরের সদ্য সংস্কারকৃত অংশের উদ্বোধন করবেন এবং মন্দিরটি পরিদর্শন করবেন। এসময় তিনি মন্দির সংশ্লিষ্ট কমিটির সদস্যদের সঙ্গে মতবিনিময় করবেন। পরে বেলা ১১টার দিকে হোটেলে ফিরে আসবেন। সেখানে থেকে ১২টা ১৫ মিনিটে হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ভিভিআইপি টার্মিনালের উদ্দেশ্য রওনা দেবেন।
দুপুর ১২টা ৪০ মিনিটে রাষ্ট্রীয় সফর শেষে দিল্লির উদ্দ্যেশ্যে ঢাকা ত্যাগ করবেন ভারতের রাষ্ট্রপতি। তাকে বিদায় জানাবেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

6 − four =

সবচেয়ে আলোচিত