ঢাকা   বৃহস্পতিবার, ৬ অক্টোবর ২০২২, ২১ আশ্বিন ১৪২৯   সকাল ৭:৩৮ 

সর্বশেষ সংবাদ

বঙ্গবন্ধুর উদ্যোগগুলোই ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণের মূল প্রেরণা : আইনমন্ত্রী

আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, ডিজিটাল বিপ্লবে শামিল হওয়ার লক্ষ্যে বঙ্গবন্ধুর গৃহীত ও বাস্তবায়িত উদ্যোগগুলোই ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণের মূল প্রেরণা। রোববার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ডিজিটাল বাংলাদেশ দিবস ২০২১ উপলক্ষ্যে আয়োজিত “ডিজিটাল বাংলাদেশের অর্জন, উপকৃত সকল জনগণ” শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন তিনি। আনিসুল হক বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্বপ্ন দেখেছিলেন একটি সুখী সমৃদ্ধশালী সোনার বাংলার। মাত্র সাড়ে তিন বছরের শাসনামলে এ স্বপ্নের বাস্তবায়নে তিনি তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি, কৃষি, শিল্প, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, জ্বালানি, সমুদ্রসহ প্রায় সকল খাতে নানা উদ্যোগ ও কার্যক্রমের বাস্তবায়ন করেন । তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি খাতটি ছিল তম্মধ্যে একটি উজ্জ্বলতম দৃষ্টান্ত। বঙ্গবন্ধু ডিজিটাল বিপ্লবে শামিল হওয়ার দূরদর্শী চিন্তা থেকে সদ্য স্বাধীন যুদ্ধ বিধ্বস্ত বাংলাদেশ ১৯৭৩ সালের ৫ সেপ্টেম্বর আইটিইউ’র সদস্যপদ লাভ করে। এরই ধারাবাহিকতায় মহাকাশে স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের লক্ষ্যে ১৯৭৫ সালের ১৪ জুন বেতবুনিয়ায় তিনি ভূ-উপগ্রহ কেন্দ্রের উদ্বোধন করেন। আইনমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ডিজিটাল বাংলাদেশের এগিয়ে যাওয়ার বিগত ১২ বছরে দেশে একটি শক্তিশালী আইসিটির ভিত্তি তৈরি হয়েছে, যা গ্রাম এলাকা পর্যন্ত তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তির সম্প্রসারণ ঘটিয়েছে। দেশের ৩ হাজার ৮০০ ইউনিয়ন এখন ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট কানেক্টিভিটির আওতায়। সারাদেশে ৫ হাজার ২শ’ ৭৫টি ডিজিটাল সেন্টার স্থাপন এবং ৬শ’রও বেশি সেবা ডিজিটালাইজ করা হয়েছে । ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার হতে প্রান্তিক পর্যায় পর্যন্ত নাগরিকদের ১০৬ ধরনের সরকারি ও বেসরকারি ই-সেবা প্রদান করা হচ্ছে। দেশের প্রায় ৯৯ শতাংশ এখন মোবাইল নেটওয়ার্ক কভারেজের আওতায়। মোবাইল ফোন গ্রাহকসংখ্যা ১৮ কোটি ১৩ লাখ ০২ হাজারে উন্নীত হয় একই সময়ে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা ১২ কোটি ৯১ লাখ ৮ হাজার- এই তথ্য তুলে ধরেন আইনমন্ত্রী। তিনি বলেন, বিচার বিভাগে শুরু হয়েছে অনলাইনে বিচার কার্যক্রম। ভার্চুয়াল কোর্ট সিস্টেম (MyCourt) প্ল্যাটফর্মে বর্তমানে ২২৫টি আদালতের কার্যক্রম চলমান রয়েছে। ফলে বিচারিক কার্যক্রমে ই-গর্ভনেন্সের সুফল ইতিমধ্যে জাতি পেতে শুরু করেছে। যা ডিজিটাল বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠায় সরকারের দৃঢ় অঙ্গীকারের প্রতিফলন। দুই হাজার ২০০ কোটি টাকার ই-জুডিশিয়ারি প্রকল্প গ্রহণ করা হচ্ছে জানিয়ে আইনমন্ত্রী বলেন, প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে কম্পিউটারাইজড প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে বিচার প্রক্রিয়া আরও সহজ, স্বচ্ছ এবং গতিশীল হবে। সবগুলো উদ্যোগ বাস্তবায়ন হলে ভবিষ্যতে নিয়মিত আদালতের পাশাপাশি ভার্চুয়াল আদালতেও বাদী-বিবাদীর সম্মতিতে বিচার কাজ অব্যাহত রাখা সম্ভব হবে। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এমপির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম, কনফিগ ভিআর এন্ড কনফিগ আরবট এর প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী রুদমিলা নওশীন, চাইল্ড হেলথ রিসার্চ ফাউন্ডেশনের বিজ্ঞানী ড. সেঁজুতি সাহা বক্তৃতা করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

2 × three =

সবচেয়ে আলোচিত