ঢাকা   শনিবার, ২২ জানুয়ারি ২০২২, ৮ মাঘ ১৪২৮   রাত ১১:৫৩ 

সর্বশেষ সংবাদ

ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে আলেশা মার্টের কার্যক্রম বন্ধ, গ্রাহকদের ২০০ কোটি টাকা অনিশ্চিত

ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান আলেশা মার্ট নিরাপত্তাহীনতার কারণ দেখিয়ে তাদের অফিশিয়াল কার্যক্রম বন্ধ ঘোষণা করে দিয়েছে। বুধবার মধ্যরাতে (রাত ৩টায়) নিজেদের ভেরিফাইড ফেসবুক পেজে এক পোস্টে তারা তাদের অফিশিয়াল কার্যক্রম বন্ধ ঘোষণা করে। তবে তাদের কাছে গ্রাহকদের অর্ডারের বিপরীতে অন্তত ২০০ কোটি টাকার বিষয়ে কিছু জানায়নি ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানটি।
পোস্টে উল্লেখ করা হয়, ‘অনাকাঙ্ক্ষিত ও নিরাপত্তাজনিত কারণবশত আলেশা মার্ট-এর সমস্ত অফিসিয়াল কার্যক্রম আজ থেকে পরবর্তী নির্দেশনা দেওয়া পর্যন্ত বন্ধ থাকবে।’
‘গতকাল বুধবার আমাদের অফিসে কতিপয় লোকের দ্বারা অফিস কর্মকর্তাদের গায়ে হাত তোলা এবং বল প্রয়োগের চেষ্টার কারণে আমরা এমন সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হচ্ছি।’
‘উল্লেখ্য যে, বলপ্রয়োগকারীরা আমাদের কাস্টমার নয়, তাদের পেমেন্ট সিডিউল ছিল না এমনকি এসএমএস পায়নি। পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা পাওয়ার পরই পুনরায় আমাদের কার্যক্রম শুরু করা হবে। এ পরিস্থিতির জন্য আমরা আন্তরিকভাবে দুঃখিত। আলেশা মার্ট-এর সঙ্গে থাকার জন্য ধন্যবাদ।’

এ বিষয়ে কথা বলতে চাইলে আলেশা মার্টের ঊর্ধ্বতন কেউ সাড়া দেননি। আলেশা মার্টের বনানীতে একটি কর্পোরেট এবং একটি রেজিস্ট্রার্ড অফিস রয়েছে। এছাড়াও তেজগাঁওয়ের নাসরিন টাওয়ারে তাদের আরেকটি অফিস রয়েছে। সেখান থেকেই গ্রাহকদের পাওনা বুঝিয়ে দেয়া হয়।
আলেশা মার্টে বিশেষ মূল্যছাড়ে মোটরসাইকেলসহ বিভিন্ন পণ্য বিক্রির পাঁচ দফা ক্যাম্পেইন চালানো হয়। এসব ক্যাম্পেইনে ৪৫ হাজার গ্রাহক পণ্যের অর্ডার দেন। চার দফায় ক্যাম্পেইনের পণ্য ডেলিভারিও দেয়া হয়। তবে পঞ্চম দফায় সাত হাজার ৩০০ গ্রাহকের অর্ডারের মোটরসাইকেল দিতে পারেনি আলেশা মার্ট। এসব অর্ডারের বিপরীতে গ্রাহকদের অন্তত ২০০ কোটি টাকা আটকে গেছে ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানটিতে।
উত্তরা মোটরসের তেজগাঁও এলাকার ডিলার এসকে ট্রেডার্সের কাছ থেকে মোটরসাইকেল সংগ্রহ করে গ্রাহকদের দিয়েছে আলেশা মার্ট। ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানে নজরদারি এবং বকেয়া বাড়ায় আগস্ট মাস থেকে আলেশা মার্টকে মোটরসাইকেল দেয়া বন্ধ করে দেয় প্রতিষ্ঠানটি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

eight − 6 =

সবচেয়ে আলোচিত