ঢাকা   শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১   সন্ধ্যা ৭:১০ 

সর্বশেষ সংবাদ

করোনায় নির্বাচন কর্মকর্তার মৃত্যু; সিলেট-৩ আসনে উপনির্বাচন নিয়ে শঙ্কা, স্থগিত চেয়ে আইনি নোটিশ

সিলেট আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মো. ইসরাইল হোসেন করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। রোববার বেলা ৩টার দিকে রাজধানীর একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। ইসরাইল হোসেন আগামি ২৮ জুলাই অনুষ্ঠিত সিলেট -৩ আসনের উপনির্বাচনে রিটার্নিং অফিসারের দায়িত্বে ছিলেন। করোনায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হলে সিলেট জেলা প্রশাসককে রিটার্নিং অফিসারের দায়িত্ব দেয়া হয়।

( নির্বাচন কর্মকর্তা ইসরাইল হোসেন,মারা গেলেন করোনায়)।
আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুতে উপনির্বাচন স্থগিত হবে কী না এ নিয়ে আলোচনা হচ্ছে। দেশে একদিকে চলছে কঠোর লকডাউন আরেক দিকে করোনা সংক্রমন বৃদ্ধি পাওয়ায় সিলেট ৩ আসনের ভোটাররা আছেন আতঙ্কে। প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদা যদিও ইতিমধ্যে বলেছেন উপনির্বাচন স্থগিতের সম্ভবানা নেই।
এদিকে করোনাভাইরাস সংক্রমণ বিবেচনায় সিলেট-৩ আসনের উপনির্বাচন স্থগিত করার অনুরোধ জানিয়ে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা বরাবরে আইনি নোটিশ পাঠিয়েছেন পাঁচ আইনজীবী। অন্যথায় তাঁরা উচ্চ আদালতের শরণাপন্ন হতে বাধ্য হবেন বলে নোটিশে উল্লেখ করা হয়েছে। রোববার এই নোটিশ পাঠানো হয়।
উল্লেখ্য গত ১১ মার্চ করোনা আক্রান্ত হয়ে সিলেট-৩ আসনের সংসদ সদস্য আওয়ামী লীগ নেতা মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী মারা যান। এরপর ১৫ মার্চ আসনটি শূন্য ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। আসনটিতে উপ নির্বাচনের তফসীল অনুযায়ী ২৮ জুলাই ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।
নির্বাচন কমিশন (ইসি) সচিবালয়ের যুগ্ম-সচিব ও পরিচালক (জনসংযোগ) এসএম আসাদুজ্জামান জানান, সিলেট-৩ আসনে উপনির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর ২ জুন নির্বাচন কমিশনের প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে এই উপনির্বাচনে ইসরাইল হোসেনকে রিটার্নিং কর্মকর্তার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল। এই দায়িত্ব পালনের সময় ৩ জুলাই ইসরাইলসহ তিনজন সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা করোনায় আক্রান্ত হন। এর মধ্যে ইসরাইল হোসেন ঢাকায় একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধিন অবস্থায় মারা যান।
তার বয়স হয়েছিল ৫৭ বছর। তিনি স্ত্রী, তিন সন্তানসহ অসংখ্য সহকর্মী ও গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। ইসরাইল হোসেনের মৃত্যুতে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদাসহ নির্বাচন কমিশন গভীর শোক প্রকাশ করেছেন এবং তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়ে তার বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন।
এদিকে করোনাভাইরাস সংক্রমণ বিবেচনায় সিলেট-৩ আসনের উপনির্বাচন স্থগিত করার অনুরোধ জানিয়ে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা বরাবরে আইনি নোটিশ পাঠিয়েছেন পাঁচ আইনজীবী।
পাঁচ আইনজীবীর পক্ষে আইনজীবী মোহাম্মদ শিশির মনির ই–মেইলে রোববার ওই আইনি নোটিশ পাঠান। ওই উপনির্বাচন অনুষ্ঠান নিয়ে গণমাধ্যমের আসা সিইসির বক্তব্য তুলে ধরে নোটিশে বলা হয়, সিইসি বলেছেন যে সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতার কারণে চলমান লকডাউনেও নির্বাচন স্থগিত রাখা সম্ভব নয়। সংবিধানের ১২৩ অনুচ্ছেদের ৪ দফার শর্তানুযায়ী সিলেট উপনির্বাচন অনুষ্ঠানের সময়সীমা ২০২১ সালের সেপ্টেম্বর মাসের ৭ তারিখ পর্যন্ত। তাই ২৮ জুলাই অনুষ্ঠিতব্য নির্বাচন স্থগিত করা যাবে না—এই বক্তব্য আইনের সঠিক ব্যাখ্যা নয়।
আরও বলা হয়, নির্বাচন কমিশনের উচিত চলমান করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বৃদ্ধি বিবেচনায় নিয়ে লকডাউনের সময় নির্বাচন অনুষ্ঠান আয়োজন না করা এবং ৭ সেপ্টেম্বরের মধ্যে অন্য যেকোনো সময় ভোট গ্রহণ নির্ধারণ করা। ৩ লাখ ৫২ হাজার ভোটারের এই নির্বাচন অনুষ্ঠান সরকারের বর্তমান লকডাউন নীতিরও বিরোধী। সুতরাং ২৮ জুলাইয়ের মধ্যে নির্বাচন অনুষ্ঠানের কোনো সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতা নেই।
তাই করোনাভাইরাস সংক্রমণের বৃদ্ধি বিবেচনায় নিয়ে ২৮ জুলাই অনুষ্ঠিতব্য সিলেট-৩ আসনের ভোট গ্রহণ স্থগিত করার অনুরোধ জানানো হয় নোটিশে। অন্যথায় নোটিশদাতারা উচ্চ আদালতের শরণাপন্ন হতে বাধ্য হবেন বলে নোটিশে উল্লেখ করা হয়।
নোটিশদাতা পাঁচ আইনজীবী হলেন মোহা. মুজাহিদুল ইসলাম, আল-রেজা মো. আমির, জোবায়দুর রহমান, মো. জহিরুল ইসলাম ও মোস্তাফিজুর রহমান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সবচেয়ে আলোচিত