ঢাকা   শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১   সন্ধ্যা ৬:৫৭ 

সর্বশেষ সংবাদ

আফগানিস্তানে পুলিৎজারজয়ী রয়টার্সের ভারতীয় সাংবাদিক নিহত

আফগানিস্তানের কান্দাহারে তালেবান ও আফগান সরকারি বাহিনীর সংঘর্ষের মধ্যে পড়ে নিহত হয়েছেন পুলিৎজার জয়ী বার্তা সংস্থা রয়টার্সের ভারতের প্রধান ফটো সাংবাদিক দানিশ সিদ্দিকী। তার মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছেন ভারতে নিযুক্ত আফগানিস্তানের রাষ্ট্রদূত ফরিদ মামুন্দজাই।
শুক্রবার একটি টুইটবার্তায় তিনি জানান, গত রাতে কান্দাহারে আমার বন্ধু দানিশ সিদ্দিকির মৃত্যুর খবরে আমি শোকাহত। আফগান বাহিনীর নিরাপত্তা ব্যবস্থার মধ্যে ছিলেন ভারতীয় এ পুলিৎজার পুরস্কারজয়ী সাংবাদিক। কাবুলে যাওয়ার দু’সপ্তাহ আগে ওনার সঙ্গে দেখা করেছিলাম আমি। তার পরিবার এবং রয়টার্সের প্রতি সমবেদনা জানাচ্ছি।
ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলোর খবরে বলা হয়েছে, আফগানিস্তানের যুদ্ধ পরিস্থিতির ছবি তুলতে দানিশ কয়েকদিন আগে সেখানে গিয়েছিলেন। আফগান সেনাবাহিনীর সঙ্গে থেকে কাজ করছিলেন তিনি। শুক্রবার সংবাদ সংস্থা জানিয়েছে, কান্দাহারের স্পিন বোলডাক জেলায় সংঘর্ষের মধ্যে পড়ে তিনি নিহত হয়েছেন।
আফগানিস্তানের সংবাদমাধ্যম তোলো নিউজ জানিয়েছে, কান্দাহারের স্পিন বলডাক জেলায় সংঘর্ষ চলাকালীন মৃত্যু হয়েছে দানিশের। বুধবার ওই স্পিন বলডাক এলাকায় পাকিস্তান সীমান্ত বরাবর একটি গুরুত্বপূর্ণ ক্রসিং দখল করে নিয়েছে তালেবানরা।
জানা গেছে, আফগানিস্তান থেকে নিয়মিত ছবি ও খবর পাঠাচ্ছিলেন দানিশ। এক পুলিশ কর্মকর্তাকে উদ্ধারের জন্য আফগানি স্পেশাল ফোর্সের একটি অভিযান নিয়ে খবর করেছিলেন। দানিশের রিপোর্টে একাধিক ছবি ছিল। তার তোলা ছবিতে দেখা গিয়েছিল, কীভাবে আফগানি বাহিনীর গাড়ি লক্ষ্য করে হামলা চালাচ্ছে তালেবানরা। নিজের টুইটার অ্যাকাউন্টে একটি ভিডিও পোস্ট করেছিলেন। তাতে জানিয়েছিলেন, আফগান স্পেশাল ফোর্সের যে গাড়িতে করে যাচ্ছিলেন তিনি, তাতে রকেট হামলা চালানো হয়। রকেট হামলার দৃশ্যও তার ভিডিওতে ধরা পড়েছিল।
পাকিস্তান-অধ্যুষিত বালুচিস্তানের চামানের সঙ্গে আফিগানিস্তানের যোগাযোগ রয়েছে। ওই সীমান্তটি আফগান সরকারের অর্থ উপার্জন, আন্তঃসীমান্ত যাতায়াত এবং বাণিজ্যের ক্ষেত্রে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। যদিও বৃহস্পতিবার আফগান বাহিনীর তরফে জানানো হয়, স্পিন বলডাক এলাকা পুনদর্খল করা হয়েছে। তবে সেই দাবি উড়িয়ে দিয়েছে তালেবানরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সবচেয়ে আলোচিত