ঢাকা   মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১২ আশ্বিন ১৪২৯   রাত ২:১৭ 

সর্বশেষ সংবাদ

মেজর সিনহা হত্যা: আদালতে লিয়াকতের জবানবন্দি, ওসি প্রদীপের সংশ্লিষ্টতা পেয়েছে তদন্ত কমিটি

অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা রাশেদ খান হত্যা মামলায় আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন পুলিশের ইন্সপেক্টর লিয়াকত।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এএসপি খাইরুল ইসলাম জানান, বরখাস্ত ইন্সপেক্টর লিয়াকত আলী ফৌজদারি কার্যবিধির ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছেন।
কক্সবাজার জেলা আদালতের কোর্ট ইন্সপেক্টর প্রদীপ কুমার দাশ জানান, রোববার বেলা ১১টা ৫০ মিনিটে তাকে আদালতে আনা হয়।বিকাল ৪টা ৩৫ মিনিটে জবানবন্দি শেষ হয়।
এদিকে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় গঠিত তদন্ত কমিটির প্রধান চট্টগ্রামের অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার
মোহাম্মদ মিজানুর রহমান বলেছেন সিনহা হত্যার ঘটনায় বরখাস্ত হওয়া ওসি প্রদীপ ঘনিষ্ঠভাবে জড়িত। রোববার তদন্ত কমিটি জরুরি সভা শেষে সন্ধ্যায় কক্সবাজারে এক প্রেসব্রিফিং করে এ তথ্য জানানো হয়। মিজানুর রহমান জানান, তদন্ত কমিটির মেয়াদ ৩১ আগস্ট শেষ হবে। কিন্তু প্রদীপ রিমান্ডে থাকায় তার জবানবন্দি গ্রহণ করা সম্ভব হয় নি। আদালতে আবেদন করা হয়েছে, আদালত বলেছেন রিমান্ড শেষেই প্রদীপের জবানবন্দি নেয়া যাবে। সেটা ১ সেপ্টেম্বর হতে পারে। এ জন্য কমিটির মেয়াদ বাড়ানোর আবেদন জানানো হয়েছে।
মিজানুর রহমান জানান তদন্ত কমিটি এখন পর্যন্ত ৬৭ জনের জবানবন্দি নিয়েছে। এসব জবানবন্দি থেকে ঘটনার সঙ্গে ওসি প্রদীপের জড়িত থাকার প্রমাণ পাওয়া গেছে। প্রদীপের জবানবন্দি নিতে পারলেই তদন্ত শেষ পর্যায়ে পৌঁছবে বলে জানান কমিটির প্রধান।

এ দিকে তৃতীয় দফায় তিন দিনের রিমান্ডের দুই দিন পর লিয়াকতকে আদালতে তোলা হল। এর আগে বেলা সোয়া ১১টায় তাকে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নেওয়া হয়।

জবানবন্দি শেষে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা র‌্যাবের এএসপি খাইরুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, “মামলার ১ নম্বর আসামি লিয়াকত কিছু তথ্য উপাত্ত আমাদের কাছে স্বীকার করেছেন। পুলিশের কাছে দেওয়া স্বীকারোক্তির কোনো মূল্য নাই যদি না ম্যাজেস্ট্রট সাহেবের কাছে সেটা স্বীকার করেন।

“ওনার ‘ওয়ান সিক্সটি ফোর’ করার জন্য আমরা বিজ্ঞ আদালতে ওনাকে উপস্থাপন করেছিলাম।”

হাতে থাকা একটি খাম সাংবাদিকদের দেখিয়ে খাইরুল বলেন, “আমরা অলরেডি ওনার এটা পেয়েছি। এখন কী বলেছে না বলেছে আমরা এটা জানি না এখনও। এটা পড়ে দেখি নাই। আমার বিশ্বাস যে উনি সত্যিটাই প্রকাশ করেছেন।”

এর আগে সকালে কোর্ট ইন্সপেক্টর প্রদীপ বলেন, লিয়াকত আলীকে আদালতে আনার পর জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম ( কক্সবাজার-৪) তামান্না ফারাহর আদালতে তোলা হয়। এরপরই  মামলার তদন্ত কর্মকর্তার আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেওয়ার জন্য তাকে বিচারকের খাস কামরায় নেওয়া হয়।

এর আগে আর্মড পুলিশের তিন সদস্য আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দেন। তারা হলেন আমর্ড পুলিশ ব্যাটালিয়ানের (এপিবিএন) এএসআই শাহজাহান, কনস্টেবল রাজীব ও কনস্টেবল আব্দুল্লাহ।

গত ৩১ জুলাই রাত সাড়ে ১০টার দিকে কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভ সড়কের বাহারছড়া ইউনিয়নের শামলাপুর চেকপোস্টে পুলিশ পরিদর্শক লিয়াকত আলীর গুলিতে নিহত হন সিনহা।

এ ঘটনায় গত ৫ অগাস্ট সিনহার বোন শাহরিয়ার শারমিন বাদী হয়ে হত্যা মামলা দায়ের করেন। পরদিন টেকনাফ থানার সাবেক ওসি প্রদীপ দাসসহ সাত পুলিশ সদস্য আদালতে আত্মসমর্পণ করেন। ওসি প্রদীপ রিমান্ডে রয়েছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

1 × four =

সবচেয়ে আলোচিত