ঢাকা   শুক্রবার, ৭ অক্টোবর ২০২২, ২২ আশ্বিন ১৪২৯   রাত ২:০৯ 

সর্বশেষ সংবাদ

কুয়েতে গ্রেপ্তার এমপি পাপলুর হতে পারে ১৪ বছরের জেল,রিমান্ড শেষে কারাগারে; স্ত্রী, কন্যা,শ্যালিকার দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা

মানব পাচার ও অর্থপাচারের অভিযোগে কুয়েতে গ্রেপ্তার লক্ষীপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য কাজী শহীদ ইসলাম পাপলুকে কারাগারে পাঠিয়েছে কুয়েতের আদালত। দেশটির সিআইডি ৮ দিনের রিমান্ডে নিয়ে তাকে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করে। মঙ্গলবার তাকে আদালতে তোলা হয় এবং কারাগারে পাঠায়৷ কুয়েতের সংবাদ মাধ্যমে এ খবর প্রকাশিত হয়েছে।
নিয়ম অনুযায়ী এখন সিআইডি তদন্ত রিপোর্ট দাখিল করলেই আদালতে বিচারকাজ শুরু হবে। কুয়েতের আইন অনুযায়ী এ ধরনের অপরাধীদের অপরাধ প্রমাণ হলে ৭ থেকে ১৪ বছরের কারাদণ্ড হতে পারে। পাপলুর বিরুদ্ধে মানব পাচার, মুদ্রা পাচার, ঘুষ দুর্নীতির অভিযোগ আনা হয়েছে।
এদিকে দেশে এমপি পাপলুর স্ত্রী সংরক্ষিত মহিলা এমপি সেলিনা ইসলাম, মেয়ে ওয়াফা ইসলাম, সেলিনার বোন জেসমিনকে দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন।
কুয়েতের সংবাদ মাধ্যম আরব টাইমস ও সূত্রগুলো জানিয়েছে, মানবপাচারসহ বিভিন্ন অনৈতিক কাজে জড়িত থাকার অভিযোগে কুয়েতের সমাজকল্যাণ ও অর্থনীতিবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মরিয়ম আল আকিল জনশক্তি কর্তৃপক্ষের এক উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাকে তিন মাসের জন্য বরখাস্ত করেছেন। এই কর্মকর্তা বাংলাদেশের কাজী শহীদের অনৈতিক কাজের পৃষ্ঠপোষক ছিলেন। তদন্তের স্বার্থে তাকে বরখাস্ত করার সুপারিশ করেছিল সিআইডি। পাপলুর প্রতিষ্ঠান থেকে কুয়েতের যেসব কর্মকর্তাকে ঘুষ দেয়া হতো এই কর্মকর্তা তাদের একজন। জিজ্ঞসাবাদে পাপলু স্বীকার করেছেন, কাদের কাদের তিনি ঘুষ দিতেন। সে অনুযায়ী সিআইডি এদের গ্রেপ্তার করা শুরু করেছে বলে সংবাদমাধ্যমগুলো জানিয়েছে। মানবপাচারসহ বিভিন্ন জালিয়াতিতে জড়িত থাকার অভিযোগ রয়েছে এমন শতাধিক ব্যক্তির তালিকা করেছে কুয়েতের সিআইডি, দুর্নীতি দমন কর্তৃপক্ষ। সেই তালিকা ধরেই এদের গ্রেপ্তার করা হচ্ছে। পাপলুর ঘটনায় কুয়েতে কর্মরত বাংলাদেশী শ্রমিকরাও বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়েছেন।
দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা ঃ এদিকে কুয়েতে গ্রেপ্তার লক্ষীপুর -২ আসনের স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য কাজী শহীদ ইসলাম পাপলুর স্ত্রী সেলিনা ইসলামও সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য। কুয়েতে পাপলু গ্রেপ্তারের পর গত ৯ জুন দুর্নীতি দমন কমিশন( দুদক) এমপি পাপলু, তার স্ত্রী এমপি সেলিনা ইসলাম , তাদের মেয়ে ওয়াফা ইসলাম ও শ্যালিকা জেসমিনের জাতীয় পরিচয়পত্র, পাসপোর্ট, টিআইএন নম্বার, আয়কর রিটার্নসহ ব্যক্তিগত সব নথি তলব করে। এবার তারা যাতে দেশত্যাগ করতে না পারে এ জন্য গত মঙ্গলবার পুলিশের বিশেষ শাখা (এসবি)’র ইমিগ্রেশন বরাবর চিঠি দেয়া হয়েছে। দুদকের অনুসন্ধান কর্মকর্তা মো. সালাউদ্দিন চিঠি দিয়ে এই অনুরোধ জানান। দুদক সূত্র জানিয়েছে, সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে মানি লন্ডারিং, অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগ রয়েছে। দুদকের প্রাথমিক অনুসন্ধানে এর সত্যতাও পাওয়া গেছে। তারা দেশ ছেড়ে চলে যাওয়ার চেষ্টা করছেন বলে দুদকের কাছে খবর রয়েছে। তারা যাতে দেশ ছাড়তে না পারে এ জন্য ইমিগ্রেশন পুলিশের সহায়তা চাওয়া হয়েছে। দেশের সব আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ও স্থল বন্দরের ইমিগ্রেশন পুলিশকে বিষয়টি জানিয়ে দেয়া হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে।
উল্লেখ্য মানবপাচার ও বিভিন্ন জালিয়াতির অভিযোগে গত ৬ জুন কুয়েতের মুশরিফ আবাসিক এলাকার নিজ বাসা থেকে পাপলুকে গ্রেপ্তার করে কুয়েতের সিআইডি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

thirteen + 10 =

সবচেয়ে আলোচিত