ঢাকা   রবিবার, ২ অক্টোবর ২০২২, ১৭ আশ্বিন ১৪২৯   সন্ধ্যা ৬:৫৯ 

সর্বশেষ সংবাদ

নন জুডিশিয়াল স্ট্যাম্পে জাতির পিতার প্রতিকৃতি কেন নয়, জানতে চায় হাই কোর্ট

অবিলম্বে সব ধরনের নন জুডিশিয়াল স্ট্যাম্পে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতি যুক্ত করার পদক্ষেপ নিতে কেন নির্দেশ দেয়া হবে না- তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছে হাই কোর্ট।
নন জুডিশিয়াল স্ট্যাম্পে জাতির পিতার প্রতিকৃতি সন্নিবেশের নির্দেশনা চেয়ে করা এক রিটের শুনানি করে বিচারপতি জে বি এম হাসান ও বিচারপতি রাজিক আল জলিলের হাই কোর্ট বেঞ্চ রোববার এ রুল জারি করেন।  
রুলে নন জুডিশিয়াল স্ট্যাম্পে জাতির পিতার প্রতিকৃতি সন্নিবেশ করতে বিবাদীদের নিষ্ক্রীয়তা কেন ‘আইনগত কর্তৃত্ববহির্ভূত ও বেআইনি’ ঘোষণা করা হবে না, তাও জানতে চাওয়া হয়েছে।
জন প্রশাসন সচিব, অর্থ মন্ত্রণালয়ের আভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগের সচিব, আইন সচিব, পরিকল্পনা সচিব, মন্ত্রীপরিষদ সচিব, প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের সচিব, সংসদ সচিবালয়ের সচিব, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের প্রচার ও প্রকাশনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ও  রংপুরের জেলা প্রশাসককে চার সপ্তাহের মধ্যে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।
আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী আতাউল্লাহ নুরুল কবীর নয়ন। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল তুষার কান্তি রায়।
আইনজীবী আতাউল্লাহ নুরুল কবীর নয়ন জানান, সব ধরনের নন জুডিশিয়াল স্ট্যাম্পে জাতির পিতার প্রতিকৃতি সন্নিবেশ করতে বিবাদীদের বিভিন্ন সময় উকিল নোটিস পঠানো হয়।
কিন্তু তাদের কাছ থেকে সাড়া না পেয়ে এবং এ সংক্রান্ত দৃশ্যমান পদক্ষেপ না থাকায় রিটটি করেন রংপুরের সদরের বাসিন্দা মো. মোফাজ্জল হোসেন মোফা।
রিট আবেদনে সব ধরনের নন জুডিশিয়াল স্ট্যাম্পে জাতির পিতার প্রতিকৃতি সন্নিবেশ করার নির্দেশনা চাওয়া হয়েছিল। তিন দিন শুনানির পর রোববার আদালত রুল দিল।
রিট আবেদনে বলা হয়,  “স্বাধীন দেশের নাগরিক হিসেবে প্রত্যেক নাগরিকের ক্ষেত্রে বাধ্যবাধকতা রয়েছে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মর্যাদাকে আরও উন্নত স্তরে নিয়ে যাওয়ার। কিন্তু এখন পর্যন্ত নন জুডিশিয়াল  স্ট্যাম্পে জাতির পিতার প্রতিকৃতি সন্নিবেশ করার কোনো ধরনের পদক্ষেপ না নেয়া অসাংবিধানিক ও বেআইনি।
“সংবিধানের ৪(ক) অনুচ্ছেদ অনুযায়ী রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, স্পিকার, প্রধান বিচারপতির দপ্তর বা কার্যালয়সহ সরকারি-বেসরকারি অফিস, আদালত, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, বিভিন্ন সংস্থা, দূতাবাস, কর্তৃপক্ষের কার্যালয় ও দপ্তরে জাতির পিতার প্রতিকৃতির প্রদর্শন ও সংরক্ষণের বাধ্যবাধকতা রয়েছে। উচ্চ আদালত থেকে এ ধরনের নির্দেশনাও এসেছে। এমনকি জাতির পিতার প্রতিকৃতি দেশের মুদ্রাতেও সন্নিবেশিত রয়েছে। কিন্তু হতাশাজনক বিষয় হচ্ছে, নন জুডিশিয়াল স্ট্যাম্পে এখন পর্যন্ত জাতির পিতার প্রতিকৃতি সন্নিবেশ করার কোনো পদক্ষেই নেয়া হয়নি।”
ব্রিটিশ শাসনামলে ১৯৪২ ও ১৯৪৪ সালে ভারতের নন জুডিশিয়াল স্ট্যাম্পে তৎকালীন গভর্নরের প্রতিকৃতি সন্নিবেশ করা হয়েছিল বলে উল্লেখ করা হয়েছে রিটে। বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

5 × five =

সবচেয়ে আলোচিত