ঈশিতা, মৌ ও পিয়াসা রিমান্ডে

0
173

ভুয়া ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ও চিকিৎসাবিজ্ঞানী পরিচয় দিয়ে গ্রেফতার ইশরাত রফিক ঈশিতা ও তার সহযোগী শহিদুল ইসলাকে ৬ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত।
আর বিপুল পরিমাণ বিদেশি মদ, ইয়াবা ও সিসাসহ গ্রেফতার মডেল ফারিয়া মাহবুব পিয়াসা ও মরিয়ম আক্তার মৌয়ের তিনদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত।
সোমবার (২ আগস্ট) পৃথক পৃথক শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম শহিদুল ইসলামের ও আশেক ইমামের আদালত এদের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

(ভুয়া ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ঈশিতা)

আদালতে হাজির করে পুলিশ গুলশান থানার মাদক মামলায় পিয়াসাকে দশ দিন ও মোহাম্মদপুর থানায় মাদক আইনের মামলায় মৌকে দশ দিনের রিমান্ডের আবেদন করে। শুনানি শেষে আদালত এদের রিমান্ড মঞ্জুর করে।
গত রোববার রাতে প্রথমে রাজধানীর বারিধারায় মডেল পিয়াসার বাসায় অভিযান চালায় গোয়েন্দা পুলিশ। তার বাসা থেকে বিপুল পরিমান মাদক উদ্ধার করে। পরে পিয়াসার দেয়া তথ্যে আরেক মডেল মরিয়ম আক্তার মৌয়ের মোহাম্মদপুরের বাবর রোডের বাসায় অভিযান চালায়। তার বাসা থেকেও বিপুল পরিমাণ মদ উদ্ধার করা হয়। পুলিশ জানায়, মডেল পিয়াসা ও মৌ সংঘবদ্ধ একটি চক্র। তারা পার্টির নামে উচ্চবিত্তদের বাসায় ডেকে মদ ও ইয়াবা খাইয়ে আপত্তিকর ছবি তুলে রাখতেন। পরে সেই ছবি দেখিয়ে ব্ল্যাকমেইল করে মোটা অঙ্কের অর্থ হাতিয়ে নিতেন। তাদের বিরুদ্ধে মানুষকে ব্ল্যাকমেইল করার অভিযোগ রয়েছে।
প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালের মে মাসে বনানীর রেইনট্রি হোটেলে দুই বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রী ধর্ষণের শিকার হয়েছিলেন। ওই ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলার এজাহারে নাম ছিল ফারিয়া মাহাবুব পিয়াসার। প্রথমে মামলা করতে ভুক্তভোগীদের সহযোগিতা করেছিলেন পিয়াসা। কিন্তু সেই পিয়াসার বিরুদ্ধেই আবার মামলা তুলে নেয়ার হুমকির অভিযোগে জিডি করেছিলেন ভুক্তভোগী। এদিকে ভুয়া ব্রিগেডিয়ার জেনারেল, চিকিৎসাবিজ্ঞানী ও গবেষক, বিশিষ্ট আলোচক এবং কূটনীতিক পরিচয়ের মাধ্যমে প্রতারণা করে অর্থ আত্মসাৎ করার অভিযোগে গ্রেফতার ইশরাত রফিক ঈশিতা ও তার সহযোগী শহিদুল ইসলাম দিদারের বিরুদ্ধে ৬ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত।
দুই আসামিকে ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করা হয়। এরপর রাজধানীর শাহআলী থানার প্রতারণা ও মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের পৃথক মামলায় ৫ দিন করে মোট ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা।
শুনানি শেষে মহানগর হাকিম মো. আশেক ইমাম প্রতারণার মামলায় ৩ দিন ও মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের মামলায় ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।
রোববার সকালে মিরপুর থেকে ঈশিতা ও তার সহযোগী দিদারকে গ্রেফতার করে র‍্যাব-৪। এ সময় তার বাসা থেকে ভুয়া আইডি কার্ড, ভিজিটিং কার্ড, সিল, সনদ, প্রত্যয়নপত্র, পাসপোর্ট, ল্যাপটপ, ইয়াবা, বিদেশি মদ ও ভুয়া ব্রিগেডিয়ার জেনারেল পদের দুটি ইউনিফর্ম এবং র‌্যাঙ্ক ব্যাজ উদ্ধার করা হয়। সোমবার সকালে তাদের বিরুদ্ধে মিরপুরের শাহআলী থানায় তিনটি মামলা করা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

seven − 1 =