ঢাকা   বুধবার, ৫ মে ২০২১, ২২ বৈশাখ ১৪২৮   রাত ১১:৩১ 

ভেঙে গেলো বিল গেটস ও মেলিন্ডার সংসার, প্রেম আর বিয়ে ৩৪ বছরের সম্পর্কের ইতি টানলেন বিশ্বের ধনাঢ্য ও দাতা এই দম্পতি

বিশ্বের ধনাঢ্য দম্পতি বিল গেটস ও মেলিন্ডা গেটস তাদের ৩৪ বছরের সম্পর্কের ইতি টানার সিদ্ধান্ত নিলেন। এর মধ্যে ৭ বছরের প্রেম আর বিবাহিত জীবন...

সর্বশেষ সংবাদ

আদালতের সময় নষ্ট করায় আইনজীবী ই্‌উনুছ আলীকে হাইকোর্টের জরিমানা

আদালতের ‘সময় নষ্ট করায়’ আইনজীবী ইউনুছ আলী আকন্দকে হাইকোর্ট যে জরিমানা করেছে এই আদেশের বিরুদ্ধে তিনি আইনী লড়াই করবেন বলে জানিয়েছেন। মি. ইউনুছ বলেন,ভার্চুয়াল...

ছিনতাইকারীর হ্যাঁচকা টানে রিকশা থেকে পড়ে নারীর মৃত্যু

রাজধানীর মতিঝিলে ‘ব্যাগ ধরে’ প্রাইভেট কারে থাকা ছিনতাইকারীর হ্যাঁচকা টানে রিকশা থেকে পড়ে এক নারীর মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। নিহত সুনিতা রাণী দাস থাকতেন...

দেশের মানুষের ভাগ্য উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী, জানালেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক

আইনমন্ত্রী আনিসুল হক এমপি বলেছেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এদেশের মানুষের মুক্তি ও ভাগ্য উন্নয়নে আজীবন লড়াই করে গেছেন। তাঁর সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ...

হেফাজতের মামুনুল দুই মামলায় আরও ৫ দিনের রিমান্ডে

পল্টন থানার নাশকতার দুই মামলায় হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আরও ৫ দিনের হেফাজতে নেওয়ার অনুমতি পেয়েছে পুলিশ। ঢাকার মহানগর হাকিম...

পরিস্থিতি দেখে আদালত বন্ধ বা চালু রাখার সিদ্ধান্ত নেবেন প্রধান বিচারপতি,জানালেন আইনমন্ত্রী

করোনা সংক্রমণের ঊর্ধ্বমুখী প্রভাবের মধ্যে আদালতের কার্যক্রম বন্ধ না চালু থাকবে, সে বিষয়ে প্রধান বিচারপতি সিদ্ধান্ত নেবেন বলে জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। বৃহস্পতিবার সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি প্রাঙ্গণে সমিতির নব নির্বাচিত সভাপতি ও সাবেক আইনমন্ত্রী আবদুল মতিন খসরুর জানাজা শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।
করোনায় একের পর এক আইনজীবীর মৃত্যুর পরও আদালত খোলা থাকবে কিনা তা জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, করোনার এই অবস্থায় আদালত বন্ধ বা চালু রাখার এখতিয়ার প্রধান বিচারপতির। কিন্তু আমার বিশ্বাস, করোনা ভাইরাসের তীব্রতা বা কমে যাওয়া বিবেচনা করে প্রধান বিচারপতি সঠিক সিদ্ধান্ত নেবেন।
এসময় আবদুল মতিন খসরু প্রসঙ্গে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেন, আবদুল মতিন খসরু আওয়ামী লীগের একজন একনিষ্ঠ কর্মী ছিলেন। তিনি ছাত্রলীগ করার সময় থেকে তাকে আমি চিনি। তিনি একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা। পাঁচবার জাতীয় সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। ১৯৯৬ সালে প্রথম তিনি আইন প্রতিমন্ত্রী হন। এর ছয় মাস পর তিনি পূর্ণমন্ত্রী হন। ব্যক্তিগতভাবে তিনি আমাকে স্নেহ করতেন। বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলার সময় তিনি তখন আইনমন্ত্রী ছিলেন, কাজ শেষ করে তিনি সন্ধ্যাবেলা আসতেন, আমাদের কাজ শেষ হলে তিনি বাড়ি ফিরতেন। ১৯৯৬ সালে ইনডেমনিটি অধ্যাদেশ বাতিলের সময় তিনি সংসদে যে বক্তব্য দিয়েছিলেন তা আজও স্মরণীয়। সেদিন তার বক্তব্যে দেশের মানুষ কেঁদেছে। তার মৃত্যুতে আইন অঙ্গণে একটা বিরাট শূন্যতা সৃষ্টি হয়েছে।

 

মন্তব্য করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন!
এখানে আপনার নাম লিখুন

সবচেয়ে আলোচিত

ভেঙে গেলো বিল গেটস ও মেলিন্ডার সংসার, প্রেম আর বিয়ে ৩৪ বছরের সম্পর্কের ইতি টানলেন বিশ্বের ধনাঢ্য ও দাতা এই দম্পতি

বিশ্বের ধনাঢ্য দম্পতি বিল গেটস ও মেলিন্ডা গেটস তাদের ৩৪ বছরের সম্পর্কের ইতি টানার সিদ্ধান্ত নিলেন। এর মধ্যে ৭ বছরের প্রেম আর বিবাহিত জীবন...

ভার্চুয়াল জগতে নাগরিকদের কণ্ঠরোধ করা উচিত নয়: ভারতীয় সুপ্রিম কোর্ট

ভার্চুয়াল জগতে নিজেদের সমস্যার কথা তুলে ধরতেই পারেন সাধারণ মানুষ, সেখানে দমননীতি চালানো উচিত নয়। করোনা পরিস্থিতিতে ভারত মৃত্যুপুরীতে পরিণত হওয়ার পেছনে দেশটির...

বাঁশখালী সংঘর্ষ: নিহতদের পরিবারকে ৫ লাখ টাকা করে দিতে এস আলমকে হাই কোর্টের নির্দেশ

চট্টগ্রামের বাঁশখালীতে এস আলম গ্রুপের নিমার্ণাধীন বিদ্যুৎ কেন্দ্রে শ্রমিক-পুলিশ সংঘর্ষে নিহতদের পরিবারকে ‘আপাতত’ ৫ লাখ টাকা করে দিতে নির্দেশ দিয়েছে হাই কোর্ট। মানবাধিকার সংগঠন আইন...

আদালতের সময় নষ্ট করায় আইনজীবী ই্‌উনুছ আলীকে হাইকোর্টের জরিমানা

আদালতের ‘সময় নষ্ট করায়’ আইনজীবী ইউনুছ আলী আকন্দকে হাইকোর্ট যে জরিমানা করেছে এই আদেশের বিরুদ্ধে তিনি আইনী লড়াই করবেন বলে জানিয়েছেন। মি. ইউনুছ বলেন,ভার্চুয়াল...

কওমি মাদ্রাসা শিক্ষার্থীদের মুক্তিযুদ্ধবিরোধী ও নারীবিদ্বেষী করা হচ্ছে, বললেন শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি

শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি বলেছেন, “আমরা যখন কুদরত-ই-খুদা শিক্ষা কমিশন, ২০১০ সালের শিক্ষানীতি অনুসরণ করার চেষ্টা করছি, তখন কওমি মাদ্রাসাগুলোতে শিক্ষার্থীদের জাতিবিরোধী, মুক্তিযুদ্ধবিরোধী নারীবিদ্বেষী গুজবের...