ঢাকা   বৃহস্পতিবার, ৬ অক্টোবর ২০২২, ২১ আশ্বিন ১৪২৯   সকাল ৭:৫০ 

সর্বশেষ সংবাদ

তামাক নিয়ন্ত্রণ আইনের খসড়া প্রস্তাবে সংশ্লিষ্ট অংশীজনদের মতামত নেয়ার পরামর্শ

ইন্টেলেকচুয়াল প্রপার্টি এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (আইপিএবি) আয়োজনে নীতি সংলাপ এবং এর প্রভাব (তামাক এবং লিংকেজ সেক্টর)’ শীর্ষক একটি নীতি সংলাপ অনুষ্ঠিত হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার রাজধানীর হোটেল শেরাটনে ‘এতে শিক্ষাবিদ, ব্যবসায়ী ও সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ, বিভিন্ন শিল্প খাতের উর্ধতন কর্মকর্তা ও তামাক শিল্পখাতের প্রতিনিধিরা বক্তব্য রাখেন।
আইপিএবি ধারাবাহিকভাবে বিভিন্ন সেক্টরের সমস্যা ও সম্ভাবনা নিয়ে নিয়মিত সংলাপ আয়োজন করে আসছে।
অনুষ্ঠানে বক্তারা স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় কর্তৃক জনমত যাচাইয়ের জন্য প্রকাশিত তামাক খাতে প্রযোজ্য আইনের সংশোধনী প্রস্তাবসমূহের উপর বিশ্লেষণ ও মতামত উপস্থাপন করেন।
বিদ্যমান তামাক নিয়ন্ত্রণ আইনটি ২০০৫ সালে প্রতিষ্ঠিত ও সর্বশেষ ২০১৩ সালে সংশোধিত হয় এবং পরবর্তীতে ২০১৫ সালে এই আইনের বিধি চূড়ান্ত করা হয়। বর্তমানে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এই আইনের অধিকতর সংশোধন আনয়নের লক্ষ্যে একটি খসড়া প্রস্তুত করেছে, যার মধ্যে ধূমপান এলাকার ব্যবস্থা বিলুপ্তিকরণ,তামাক কোম্পানিগুলোর সামাজিক দায়বদ্ধতা কর্মসূচী (সিএসআর) নিষিদ্ধকরণ, ই-সিগারেট নিষিদ্ধকরণ,তামাকজাত দ্রব্য বিক্রয়ের জন্য পৃথকভাবে লাইসেন্স গ্রহণ, ফেরি করে তামাকজাত পণ্য বিক্রি নিষিদ্ধকরণ, সিগারেটের একক শলাকা বিক্রি নিষিদ্ধকরণ ইত্যাদিসহ বেশ কিছু প্রস্তাব আনা হয়েছে। বক্তারা অনেকে অভিযোগ করেন, তামাক সংক্রান্ত আইন প্রণয়ন সভায় সংশ্লিষ্ট খাতের প্রতিনিধি ও এসোসিয়েশনগুলোর মতামত নেওয়া হয়নি। তারা সব ধরনের অংশীজনদের মতামত গ্রহণের অনুরোধ করেন।
বক্তারা বলেন, প্রস্তাবিত আইনটি কার্যকর হলে তামাকখাতের সঙ্গে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে জড়িত ৬০ থেকে ৭০ লাখ মানুষ এবং সংশ্লিষ্ট নিম্ন ও মধ্যম আয়ের ব্যবসায়ী জনগোষ্ঠী অসুবিধায় পড়বে। পাশাপাশি দেশি-বিদেশী বিনিয়োগ কমে যাবে। এর ফলে সরকারের রাজস্ব আয় কমবে যা বিশ্বব্যাপী চলমান অর্থনৈতিক চ্যালেঞ্জ মোকাবিলার সামর্থ্যকে হ্রাস করবে।
সংলাপে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজনেস স্টাডিজ অনুষদের সাবেক অধ্যাপক ও অর্থনীতিবিদ ড. হারুনুর রাশিদ। আলোচক ছিলেন ফরেন ইনভেস্টর্স চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি’র নির্বাহী পরিচালক টি আই এম নুরুল কবির,বহুজাতিক কর্পোরেট প্রতিষ্ঠান রবি’র চিফ কর্পোরেট ও রেগুলেটরি অ্যাফেয়ার্স অফিসার ব্যারিস্টার সাহেদ আলম, এফবিসিসিআই পরিচালক আনোয়ার সাদাত, সিনিয়র সাংবাদিক তালাত মামুন, ইকোনমিক রিপোর্টার্স ফোরামের সাধারণ সম্পাদক এস এম রশিদুল ইসলাম প্রমূখ। আইপিএবির প্রেসিডেন্ট শামসুল আলম মল্লিকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সংলাপটি পরিচালনা করেন আইপিএবির ডিরেক্টর জেনারেল মো. আজিজুর রহমান। (বাসস)|

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

18 + nine =

সবচেয়ে আলোচিত